নবজাতক জন্ম নিলেই গাছের চারা নিয়ে হাজির তারা

 

নেত্রকোনায় সবুজ পৃথিবী গড়তে নবজাতক জন্ম নেয়া বাড়িতে গিয়ে ওই নবজাতককে গাছের চারা দিয়ে শুভেচ্ছা জানাচ্ছে গ্রামের একদল কিশোরী। যে বাড়িতেই নবজাতক জন্ম নিচ্ছে সে বাড়িতেই তারা গাছের চারা নিয়ে হাজির হচ্ছে। নেত্রকোনা সদর উপজেলার কাইলাটি ইউনিয়নের ফসিকা গ্রামের ১৫ কিশোরী ‘অগ্রযাত্রা কিশোরী’ নামে একটি সংগঠন গঠন করেছে। কিশোরীরা সকলেই বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পড়াশোনা করেন।

এলাকায় নতুন শিশু জন্ম নিলেই তারা গাছের চারা নিয়ে হাজির হয় শিশুর মায়ের কাছে। শিশুকে স্বাগত জানায় এই পৃথিবীতে। আর এমনটি দেখে খুশি হন নবজাতকের পরিবারসহ গ্রামের মানুষেরাও।
শুধু গাছের চারা নিয়েই শুভেচ্ছা জানান না তারা। গ্রামের যে কোন পরিবারে কোন নারী গর্ভবতী হলে কিশোরী সংগঠনের উদ্যোগে ঐ নারীকে পুষ্টিকর খাবার দিয়ে আসছে।
নিজেরা সংগ্রহ করে ৪ হালি ডিম, ৪ হালি কলা, পেয়ারা, লেবু, কচুশাক ইত্যাদি কিনে দিচ্ছে। পাশাপাশি অভিজ্ঞ স্বাস্থ্য কর্মীর মাধ্যমে স্বাস্থ্য সচেতনতা বৃদ্ধি, নিয়মিত গর্ভবতী মায়ের ওজন মাপা, রক্তচাপ ও ডায়াবেটিস পরিমাপ, নিয়মিত স্বাস্থ্য কেন্দ্রে বা কমিউনিটি ক্লিনিকে স্বাস্থ্য চেকআপের পরামর্শ দিয়ে থাকে।
এছাড়াও তারা গর্ভবতী মা ও প্রসূতি মায়েদেরকে বাড়ির আনাচে কানাচে প্রাকৃতিক ভাবে উৎপাদিত কুড়িয়ে পাওয়া শাক-সবজি খাওয়ার পরামর্শ দেয়। কিশোরীদের ধারণা একটি সবুজ সুন্দর সমাজ ও দেশ গড়তে শিশু বয়স থেকেই উদ্যোগ নিতে হবে।
কিশোরী সংগঠনের উদ্যোগী সদস্য প্রীতি আক্তার জানায়, এসব নবজাতক সন্তানদের বড় হবার জন্য প্রয়োজন পুষ্টিকর খাবারের। যে পুষ্টি বৈচিত্র্যময় সবজিসহ বিভিন্ন ফলমূল থেকে আসে।
এছাড়াও এসব নবজাতক সন্তানরা বড় হলে তাদের ভরণ-পোষণ, শিক্ষা ও চিকিৎসার জন্য অনেক টাকার প্রয়োজন হবে। আমাদের সংগঠনের উদ্যোগে প্রসূতি মায়েদের জন্য দেয়া এসব গাছ একদিন তাদের সম্পদ হয়ে উঠবে।

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন

Leave a Reply

Your email address will not be published.